রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৫৯ অপরাহ্ন

বিয়ের দাবীতে ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে কলেজ ছাত্রী

বিয়ের দাবীতে ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে কলেজ ছাত্রী

 

রংপুর মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানাধীন, হারাগাছ পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডস্থ মিয়া পাড়ায় বিয়ের দাবীতে একাদশ শ্রেনীর ছাত্রী, ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে অবস্থান করেন। স্থানীয়ভাবে বিষয়টি চাউর হলে, হারাগাছ থানা পুলিশ এসে ঐ ছাত্রীকে থানায় নিয়ে যান।

স্থানীয় ও ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর পরিবার সুত্রে জানাযায়, প্রায় ২ বছর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। সম্পর্ক থাকাকালিন প্রায়সময় ওই ছাত্রীকে নিয়ে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা, রংপুর শহরের বিভিন্ন হোটেলে বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষন করে। ভুক্তভোগী ছাত্রী তাকে বিয়ের করার দাবী জানালে, রংপুর কেরামতিয়া মসজিদে গিয়ে বিয়ে করার ওয়াদা করেন (কসম) করেন অভিযুক্ত হারাগাছ সরকারি কলেজের অনার্স (ইসলামের ইতিহাস) ফাইনাল ইয়ারের শিক্ষার্থী। হারাগাছ মিয়াপাড়া গ্রামের মোঃ মোশারফ সরকারের ছেলে শারাফাত হোসেন সোহাগ। পাশাপাশি ভুক্তভোগী কলেজ ছাত্রীকেও ওয়াদা করায় বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য। এভাবে চলার একপর্যায়ে মেয়ে বিয়ের জন্য সোহাগকে আবারও চাপদিলে সে তার পরিবারকে জানায়। পরে সোহাগের পরিবার তাকে অন্যত্র বিয়ে দেন। এ খবর পেয়ে সাবেক প্রেমিকা ৩০ জুলাই ২০২২ইং শনিবার বিকেল আনুমানিক ৩ সারে তিনটার দিকে প্রেমিক সোহাগের বাড়িতে অবস্থান নেয়। পরে স্থানীয়ভাবে বিষয়টি জানাননি হলে, রংপুর মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানা পুলিশ রাত ৮ টার সময় মেয়েটিকে প্রেমিক সোহাগের বাড়ি থেকে থানায় নিয়ে যান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই এলাকার বাসিন্দা জানান, সোহাগের পরিবার স্থানীয়ভাবে বেশ প্রভাবশালী এবং সোহাগ নিজেও হারাগাছ সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি। তাই থানা এসে পুলিশ মেয়েকে থানায় নিয়ে গেছে। পাশাপাশি এই চাঞ্চল্যকর বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চলছে। তিনি আরও জানান মেয়েটি সোহাগের বাড়িতে আসার পরপরই, মেয়েটিকে তার বাড়ি থেকে সরাতে স্থানীয় নেতাদের দৌড়ঝাঁপ ছিলো চোখে পড়ার মতো।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী জানান, এবিষয়ে সংবাদ প্রকাশ না করার জন্য সাংবাদিকদের টাকার প্রস্তাবও দিয়েছেন হারাগাছ পৌর আওয়ামী লীগ নেতার ছোট ভাই।

এবিষয়ে জানতে চাইলে হারাগাছ সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ সাদ্দাম হোসেন বলেন, ভাই আমি এব্যাপারে কিছুই জানিনা সামনে আমার পরীক্ষা তাই পরীক্ষা নিয়েই ব্যস্ত আছি। তবে কিছুদিন পুর্বে সোহাগের বিয়ে হয়েছে বলে জানি। প্রেমের ঘটনা জানানেই বলে লেখাপড়ার ব্যস্ততা দেখিয়ে কথার ইতি টানেন তিনি।

একই বিষয় জানতে চাইলে, হারাগাছ সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিয়াল জানান, ভাই আমি রাজশাহী থেকে গতকাল এসেছি আমি বেশী কিছু জানিনা, তবে সোহাগের বাড়িতে প্রেমিকার অবস্থানের বিষয় শুনেছি। তিনি আরও বলেন আপনারা ভালো করে খোঁজ নেন, অভিযোগ প্রমাণিত হলে সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হারাগাছ মেট্রোপলিটন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম জানায়, মেয়ের নিরাপত্তার খাতিরে তাকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

আপনার স্যোসাল মাধ্যমে শেয়ার দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2023 teestasangbad.com
Developed BY Rafi It Solution