1. jfjoy24@gmail.com : admin :
  2. wordpressdefaults@gmail.com : defaults :
জয় সেট সেন্টার থেকে দক্ষতা বৃদ্ধির পাশাপাশি তৈরী হবে নতুন কর্মসংস্থান-স্পিকার | তিস্তা সংবাদ
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:১২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
পীরগাছা থানা পুলিশের অভিযানে গাঁজাসহ আটক – ৪ সারাদেশে ৩ দিনের হিট অ্যালার্ট জারি স্বর্ণ চুরির অপবাদ দিয়ে কিশোরী গৃহকর্মীকে গরম ছ্যাঁকা বিমানবন্দরের থার্ড টার্মিনালের দেয়াল ভেঙে ভেতরে বাস, প্রাণ গেল প্রকৌশলীর দেশে প্রতিদিন সড়কে প্রাণ হারাচ্ছেন ১৬ জনের বেশি সমবায় কৃষি নিশ্চিত হলে দেশে কখনো খাদ্যাভাব হবে না: প্রধানমন্ত্রী পীরগাছায় প্রাণীসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত এমপি-মন্ত্রীর স্বজনদের উপজেলা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে আ.লীগের নির্দেশনা মেরিনা তাবাশ্যুম: টাইম ম্যাগাজিনের প্রভাবশালী ১০০ ব্যক্তির তালিকায় সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা, ১৭ মামলার আসামি ধরা

জয় সেট সেন্টার থেকে দক্ষতা বৃদ্ধির পাশাপাশি তৈরী হবে নতুন কর্মসংস্থান-স্পিকার

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট রবিবার, ১৭ মার্চ, ২০২৪
  • ৫২

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী বলেছেন, পীরগঞ্জে ‘জয় সেট সেন্টার’ স্থাপিত হচ্ছে। এ সেন্টার থেকে তরুণ-তরুণীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এতে বাড়বে কর্মসংস্থান।

রোববার (১৭ মার্চ) দুপুরে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় জয় সেট সেস্টার বা জয় স্মার্ট সার্ভিস অ্যান্ড এমপ্লয়মেন্ট ট্রেনিং সেন্টার নির্মাণ কাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

Add

অনুষ্ঠানে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, সারাদেশে মোট ৫৫৫টি জয় সেট সেন্টার স্থাপিত হচ্ছে। এতে ২ লাখ ৬৬ হাজার ৪০০ শিক্ষার্থী-তরুণ-যুবকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া সম্ভব হবে এবং তাদের কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরী হবে। প্রতিটি সেন্টারে একটি ব্যাচে ৪০জন সার্টিফিকেট কোর্সসহ প্রশিক্ষণ সুবিধা পাবেন। প্রতিদিন তিনটি ব্যাচ পরিচালিত হলে একটি জয় সেট সেন্টার থেকে প্রতিদিন ১২০ জন প্রশিক্ষণ পাবেন। সেই হিসেবে, একটি সেন্টার থেকে বছরে ৪টি ব্যাচে ৪৮০ জন প্রশিক্ষণ পাবেন।


জয় সেট সেন্টারে ডিজিটাল ল্যাব, প্রশিক্ষণ রুম, স্টার্ট-আপ জোন, প্লাগ এন্ড প্লে জোনসহ জেলা/উপজেলা আইসিটি কর্মকর্তাদের অফিস অবকাঠামো সুবিধা থাকবে। স্টার্ট-আপ জোনে ডিজিটাল ডিভাইস ও কানেক্টিভিটি সম্বলিত ওয়ার্কিং ফ্যাসিলিটি থাকবে। উপজেলা পর্যায়ে একত্রে ১০ জন উদ্যোক্তা/ফ্রিল্যান্সার ওয়ার্কিং ফ্যাসিলিটি পাবেন এবং জেলা পর্যায়ে একত্রে ১৫ জন ওয়ার্কিং সুবিধা পাবেন। এছাড়া প্রতিটি প্লাগ অ্যান্ড প্লে জোন থেকে বছরে ৫০ হাজারের বেশি মানুষ ডিজিটাল সেবা পাবে। উপজেলা পর্যায়ে তরুণ-তরুণীরা প্রশিক্ষণ এবং ওয়ার্কিং স্পেস পেলে নতুন উদ্যোক্তা ও ফ্রিল্যান্সার তৈরি হবে এবং আত্মকর্মসংস্থানের বিশাল সুযোগ সৃষ্টি হবে। এই তরুণরা জয় সেট সেন্টারে ফ্রিল্যান্সিং করে ডলারে ইনকাম করতে পারবেন। একইসঙ্গে মাঠ পর্যায়ে ডিজিটাল ও উদ্ভাবনী সেবাসমূহ প্রদান আরও সহজ হবে এবং গুনগত মান বৃদ্ধি পাবে।

বেশি দমে খেজুর বিক্রি

রংপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোবাশ্বের হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক মো. মোস্তফা কামাল, ডিজিটাল সংযোগ স্থাপন (ইডিসি) প্রকল্পের পরিচালক তানজিনা ইসলামসহ প্রকল্পের জন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার স্যোসাল মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই বিভাগের আরো খবর
© ২০২৪ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | তিস্তা সংবাদ.কম
Theme Customization By NewsSun