1. jfjoy24@gmail.com : admin :
  2. wordpressdefaults@gmail.com : defaults :
গঙ্গাচড়ায় এসএসসি পরীক্ষার্থী অপহরণের মামলা না নেওয়ায় সংবাদ সম্মেলন | তিস্তা সংবাদ
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
পীরগাছা থানা পুলিশের অভিযানে গাঁজাসহ আটক – ৪ সারাদেশে ৩ দিনের হিট অ্যালার্ট জারি স্বর্ণ চুরির অপবাদ দিয়ে কিশোরী গৃহকর্মীকে গরম ছ্যাঁকা বিমানবন্দরের থার্ড টার্মিনালের দেয়াল ভেঙে ভেতরে বাস, প্রাণ গেল প্রকৌশলীর দেশে প্রতিদিন সড়কে প্রাণ হারাচ্ছেন ১৬ জনের বেশি সমবায় কৃষি নিশ্চিত হলে দেশে কখনো খাদ্যাভাব হবে না: প্রধানমন্ত্রী পীরগাছায় প্রাণীসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত এমপি-মন্ত্রীর স্বজনদের উপজেলা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে আ.লীগের নির্দেশনা মেরিনা তাবাশ্যুম: টাইম ম্যাগাজিনের প্রভাবশালী ১০০ ব্যক্তির তালিকায় সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা, ১৭ মামলার আসামি ধরা

গঙ্গাচড়ায় এসএসসি পরীক্ষার্থী অপহরণের মামলা না নেওয়ায় সংবাদ সম্মেলন

সুজন আহম্মেদ
  • আপডেট বুধবার, ২৭ মার্চ, ২০২৪
  • ৩৩

রংপুরের গঙ্গাচড়ায় এসএসসি পরীক্ষার্থী অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দিলেও তা এজাহার হিসেবে নথিভুক্ত না করে অপহৃত পরিবারকে বিভিন্নভাবে হয়রানী অভিযোগ উঠেছে।

এছাড়া অপহরণের ১৪ দিন অতিবাহিত হলেও অপহৃতকে উদ্ধার করেনি পুলিশ। ঘটনাটি উপজেলার নোহালী ইউনিয়নের। নিরুপায় হয়ে অপহৃতর পরিবার সংবাদ সম্মেলন করে পুলিশের উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

 

 

 

 

বুধবার সকাল সাড়ে ১১ টায় বাংলাদেশ প্রেস ক্লাব গঙ্গাচড়ার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন অপহৃতার দাদী ও নোহালী ইউনিয়নের সাপমারী এলাকার জরিনা বেগম। এ সময় অপহারিতার চাচা উপস্থিত থেকে তাদেরকে পুলিশের টালবাহনা করে হয়রানীর কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে অপহৃতার দাদী জরিনা বেগম বলেন, বড়াইবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয় হতে সদ্য এসএসসি পরীক্ষাথী আমার ১৬ বছর বয়সী নাবালিকা নাতনী। তার বাবা ও মা ঢাকায় থাকায় নাতনী আমার কাছেই থেকে লেখাপড়া করছে।
আমার নাতনী স্কুল যাওয়া আসার পথে একই ইউনিয়নের বাগডহরা হিন্দুপাড়ার বেলাল মিয়ার পুত্র খোকন মিয়া প্রায় অশ্লীল কথাবার্তা বলে উত্যক্ত করে আসতো। আমি নাতনীর কাছে বিষয়টি জানার পর খোকনের পরিবারকে অবগত করে তাকে সতর্ক করতে বলি। এতে খোকন ক্ষীপ্ত হয়ে সে নানাভাবে সুযোগ বুঝে আমার নাতনীর ক্ষতি করবে প্রচার চালায়।

গত ১৩ মার্চ ব্যবহারিক পরীক্ষা দেওয়ার জন্য আমার নাতনী স্কুলের পথে রওয়ানা দিলে কুর্শারঘাট ব্রিজের কাছে যাওয়া মাত্র পুর্বপরিকল্পনামতো আমার নাতনীকে অজ্ঞাতনামা সিএনজিতে টানাহেঁচড়া করে তুলে অপহরণ করে নিয়ে যায়। আমার নাতনীকে টানাহেঁচড়া করে সিএনজি তুলে নেওয়ার বিষয়টি অনেকে দেখে আমাকে জানাইলে আমি পরিবারের সদস্যদের জানিয়ে বিভিন্ন জায়গায় খোজাখুজি করে না পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আশরাফ আলীকে জানাই।

চেয়ারম্যানের সহযোগিতায় থানায় এজাহার দাখিল করি। এজাহার দাখিলের সময় ওসি আমার সাথে ভাল আচরণ করে নাই। তারপরও গরিব মানুষ হিসেবে হাতজোড় করে ওসির কাছে নাতনীকে উদ্ধার করে চাই। দুইদিন পর ওসি নাতনীকে নিতে ডাকে থানায় আমি চেয়ারম্যানসহ থানায় গেলে ওসি বলে আফতাব চেয়ারম্যান (আলমবিদিতর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান) মেয়ে (অপহৃত) নিয়ে আসে নাই। সে মেয়ে নিয়ে আসার কথা ছিলো।

বেশি দমে খেজুর বিক্রি

আমি ও আমার আশরাফ চেয়ারম্যান ওসির কাছে জানতে চাই তাহলে মেয়ে উদ্ধার হবেনা বা মামলা এন্ট্রি হবেনা। তখন ওসি আবার দমক দিয়ে বলে জান দেখি কি করা যায়। আমার সাথে চেয়ারম্যান থাকার পরও ওসি ধমক দিয়ে কথা বলায় দুজন সাংবাদিকের সহযোগিতা চেয়ে তাদের খরচ দেই। সে সাংবাদিক দুজনে টাকা নিয়ে তারাও ওসি আর আফতাব চেয়ারম্যানের পাকে কথা কয়। সংবাদ সম্মেলনে

পুলিশের উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের কাছে অপহারিতার পরিবার দ্রæত মামলা এন্ট্রিসহ অপহারণের সাথে জড়িত গ্রেপ্তার করে অপহৃতাকে উদ্ধার দাবি জানান। এদিকে এ বিষয়ে ওসির মাসুমুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে, ওসি বলেন, অপহারিতা মেয়েকে উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছি। এসময় অপহৃতার চাচা,মামা স্থানীয় গণ্যমাণ্যব্যক্তিবর্গ ও উপজেলার গণমাধ্যম কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

আপনার স্যোসাল মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই বিভাগের আরো খবর
© ২০২৪ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | তিস্তা সংবাদ.কম
Theme Customization By NewsSun