Warning: Creating default object from empty value in /home/teesmgnc/public_html/wp-content/themes/newsunique/lib/ReduxCore/inc/class.redux_filesystem.php on line 29
করোনায় মা-বাবাহারা শিশুদের ঠাঁই কোথায়? - তিস্তা সংবাদ
Warning: Use of undefined constant jquery - assumed 'jquery' (this will throw an Error in a future version of PHP) in /home/teesmgnc/public_html/wp-content/themes/newsunique/functions.php on line 28
করোনায় মা-বাবাহারা শিশুদের ঠাঁই কোথায়? - তিস্তা সংবাদ

মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৪৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কাশিপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্যোগে নানামুখী কর্মসূচীর মধ্যদিয়ে জাতীয় শোক দিবস পালিত কালীগঞ্জে বিপুল পরিমাণ ফেন্ডিডিলসহ আটক-১ কালীগঞ্জে গবাদিপশুসহ গোয়াল ঘর পুড়ে ছাই রংপুরে কিশোরগ্যাং-এর নির্মমতা : চালককে তিস্তা ব্রিজ থেকে নদীতে ফেলে অটোরিকশা ছিনতাই বিয়ের দাবীতে ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে কলেজ ছাত্রী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন “বিকাশের সন্তানের মা হতে যাাচ্ছি” চিরকুট লিখে কিশোরীর আত্মহত্যা গঙ্গাচড়ায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সাংবাদিকগণের সাথে মতবিনিময় সভা পীরগঞ্জে শিশু আবির হত্যা ও মাদকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন প্রেমিকার বিয়ে হওয়ায় ফেসবুকে স্টাটাস দিয়ে যুবকের আ ত্ম হ ত্যা
করোনায় মা-বাবাহারা শিশুদের ঠাঁই কোথায়?

করোনায় মা-বাবাহারা শিশুদের ঠাঁই কোথায়?

মহামারি করোনায় নাকাল পুরো ভারত। করোনায় মৃত্যু পরবর্তী ঘটনাগুলো আরও বেদনাদায়ক। পরিবারের সদস্যদের হারানোর পর ভরণ-পোষণের দায়িত্ব নেওয়ার মতো কেউ না থাকলে অনেক বাচ্চারই জায়গা হচ্ছে এতিমখানায়। এমনকি অনেক শিশু জানতেই পারেনি তাদের বাবা-মায়ের মৃত্যুর খবর

করোনা প্রতিনিয়ত কেড়ে নিচ্ছে বাবা-মা কিংবা আত্মীয়-স্বজনদের। চোখের সামনে এমন ভয়াবহ মৃত্যুতেও থেমে নেই কেউ। কষ্টের দিনযাপন চলমান থাকে এর পরেও।

পরিবারের সবচেয়ে আপনজনদের হারিয়ে দিশেহারা শিশু-কিশোররাও।

পাঁচ বছর শিশু বয়সী রুহি ও মাহি। তিন দিনের ব্যবধানে এরা হারিয়েছে বাবা-মাকে। তাদের লালন-পালনের ভার এখন পুরোটাই বয়োবৃদ্ধ দাদা-দাদির ওপর। শিশুগুলো জানেও না তাদের বাবা-মা আর নেই।জানে না তাদের ভবিষত কি হবে।

রুহি ও মাহির দাদা বলেন, বাবা মারা যাওয়ার পরপরই মারা যায় তাদের মা। এখন ওরা আমাদের সঙ্গেই থাকে। বাবা-মায়ের মতো হয়তো তাদের বড় করতে পারব না, তারপরেও সাধ্যমতো চেষ্টা করব ওদের মানুষের মতো মানুষ করার।

করোনায় বাবা-মাকে হারিয়ে দেশটিতে কয়েক শ’ শিশুর জায়গা হয়েছে এতিমখানায়ও। ভরণ-পোষণের দায়িত্ব নেওয়ার মতো কেউ না থাকায় হয়েছে এমনটা। এ অবস্থায় চরম উৎকন্ঠা আর শঙ্কায় দিন কাটছে তাদের।

এক স্বেচ্ছাসেবী বলেন, এই শিশুদের বাবা-মায়ের অসুস্থতার পরপরই করোনা পরীক্ষা করালে পজিটিভ আসে। তারা প্রায় সুস্থও হয়ে যায়। কিন্তু হঠাৎ একদিন পরেই মারা যান তারা।

এমন দুর্দিনে পাশে থেকে এসব শিশুকে খাদ্য ও শিক্ষা সহায়তা দেয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন এতিমখানা কর্তৃপক্ষ।

আপনার স্যোসাল মাধ্যমে শেয়ার দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2022 teestasangbad.com
Developed BY Rafi It Solution