বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১১:০৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রংপুর-কাকিনা সড়ক যোগাযোগ বন্ধ  গঙ্গাচড়ায় অকাল বন্যায় ১৫ হাজার পরিবার পানিবন্দি জাতীয় সংস্থা রংপুরের শান্তি-সম্প্রীতির র‌্যালী ও মানববন্ধন বন্যার পানির তোরে গঙ্গাচড়া শেখ হাসিনা সেতুর সংযোগ সড়কে ভাঙ্গন, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন খানসামায় বিভিন্ন মসজিদের ইমামগণের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রংপুরের পীরগঞ্জে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বাড়িতে হামলা পীরগঞ্জের ১০ ইউপিতে নির্বাচন চেয়ারম্যান পদে ৫১ জন সহ ৪৫৭ জনের মনোনয়ন জমা পীরগঞ্জের ১০ ইউপিতে নির্বাচন চেয়ারম্যার পদে ৫১ জন সহ ৪৫৭ জনের মনোনয়ন জমা পীরগঞ্জে ব্রিজ সহ খাল বিক্রির অভিযোগ সভাপতি আজাদ ও সাধারণ সম্পাদক দুলু গঙ্গাচড়া ইউনিয়ন জাপার কার্যকরি কমিটি গঠন এআরসি হাসপাতাল রংপুরে চিকিৎসা সেবায় এগিয়ে থাকবে রসিক মেয়র
করোনায় মা-বাবাহারা শিশুদের ঠাঁই কোথায়?

করোনায় মা-বাবাহারা শিশুদের ঠাঁই কোথায়?

মহামারি করোনায় নাকাল পুরো ভারত। করোনায় মৃত্যু পরবর্তী ঘটনাগুলো আরও বেদনাদায়ক। পরিবারের সদস্যদের হারানোর পর ভরণ-পোষণের দায়িত্ব নেওয়ার মতো কেউ না থাকলে অনেক বাচ্চারই জায়গা হচ্ছে এতিমখানায়। এমনকি অনেক শিশু জানতেই পারেনি তাদের বাবা-মায়ের মৃত্যুর খবর

করোনা প্রতিনিয়ত কেড়ে নিচ্ছে বাবা-মা কিংবা আত্মীয়-স্বজনদের। চোখের সামনে এমন ভয়াবহ মৃত্যুতেও থেমে নেই কেউ। কষ্টের দিনযাপন চলমান থাকে এর পরেও।

পরিবারের সবচেয়ে আপনজনদের হারিয়ে দিশেহারা শিশু-কিশোররাও।

পাঁচ বছর শিশু বয়সী রুহি ও মাহি। তিন দিনের ব্যবধানে এরা হারিয়েছে বাবা-মাকে। তাদের লালন-পালনের ভার এখন পুরোটাই বয়োবৃদ্ধ দাদা-দাদির ওপর। শিশুগুলো জানেও না তাদের বাবা-মা আর নেই।জানে না তাদের ভবিষত কি হবে।

রুহি ও মাহির দাদা বলেন, বাবা মারা যাওয়ার পরপরই মারা যায় তাদের মা। এখন ওরা আমাদের সঙ্গেই থাকে। বাবা-মায়ের মতো হয়তো তাদের বড় করতে পারব না, তারপরেও সাধ্যমতো চেষ্টা করব ওদের মানুষের মতো মানুষ করার।

করোনায় বাবা-মাকে হারিয়ে দেশটিতে কয়েক শ’ শিশুর জায়গা হয়েছে এতিমখানায়ও। ভরণ-পোষণের দায়িত্ব নেওয়ার মতো কেউ না থাকায় হয়েছে এমনটা। এ অবস্থায় চরম উৎকন্ঠা আর শঙ্কায় দিন কাটছে তাদের।

এক স্বেচ্ছাসেবী বলেন, এই শিশুদের বাবা-মায়ের অসুস্থতার পরপরই করোনা পরীক্ষা করালে পজিটিভ আসে। তারা প্রায় সুস্থও হয়ে যায়। কিন্তু হঠাৎ একদিন পরেই মারা যান তারা।

এমন দুর্দিনে পাশে থেকে এসব শিশুকে খাদ্য ও শিক্ষা সহায়তা দেয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন এতিমখানা কর্তৃপক্ষ।

আপনার স্যোসাল মাধ্যমে শেয়ার দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2021 teestasangbad.com
Developed BY Rafi It Solution