সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ১২:০৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় পদার্থবিজ্ঞান অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মমিন সাধারণ সম্পাদক শোভন রংপুরে শিশু নির্যাতনের প্রতিবাদ করতে গিয়ে  মিথ্যা মামলায় কারাগারে ইউপি সদস্য জবি ছাত্রলীগের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি রাফি সেক্রেটারি সাদেক পীরগঞ্জে বিএনপির উদ্যোগে গরিব অসহায় মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ গঙ্গাচড়ায় শীতকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ গঙ্গাচড়ায় বীর মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দের মাঝে কম্বল বিতরণ গঙ্গাচড়ায় এনজিও ফেডারেশনের উদ্যোগে শীতার্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ গঙ্গাচড়ায় নবাগত ইউএনও’র সঙ্গে সাংবাদিকদের মতবিনিময় হেলপিং হ্যান্ড ফাউন্ডেশনের উদ্বোধন উপলক্ষে শীত বস্ত্র বিতরণ ব্যবসায়ীক জীবনে সড়ক থেকে সর্বোচ্চ করদাতা; তানবীর ও তৌহিদ দুই ভাইয়ের হার না মানার গল্প
পারিবারিক কারণে আত্মগোপনে ছিল আবু ত্ব-হা- পুলিশ

পারিবারিক কারণে আত্মগোপনে ছিল আবু ত্ব-হা- পুলিশ

 

ব্যাক্তিগত কারণেই এতদিন আত্মগোপনে ছিলেন আলোচিত ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ও তার সফরসঙ্গীরা। শুক্রবার ( ১৮ জুন) বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে রংপুর মেট্টোপলিটন গোয়েন্দা কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মেট্টোপলিটন উপ পুলিশ কমিশনার (ডিবি এন্ড ক্রাইম) আবু মারুফ হোসেন এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, ব্যাক্তিগত কারণে আদনান ও তার দুই সফরসঙ্গী ও ড্রাইভার আত্মগোপনে ছিলেন। গাইবান্ধায় তার বন্ধু সিহাবের বাড়িতে এতদিন অবস্থান করছিলেন। যেহেতু ব্যাক্তিগত বিষয় তাই সেটি প্রকাশ্যে আনছিনা আমরা। তবে এর পিছনে কোন অপরাধ নেই বলেও আদনান পুলিশকে জানিয়েছেন।

তিনি জানান, নিখোঁজের দিনই তিনি ঢাকা থেকে গাইবান্ধায় ফিরেছেন। বাকি তিনজনকে বুঝিয়ে, অনুরোধ করে ব্যাক্তিগত কারণ দেখিয়ে তারা আত্মগোপনে ছিলেন। চারজনই এতদিন একসাথে ছিলেন। ব্যাক্তিগত কারণটা কি এ প্রশ্নের জবাবে আবু মারুফ হোসেন বলেন, যার যেটা ব্যাক্তিগত বিষয় সেটা এভাবে প্রকাশ করতে পারিনা। সেটা একান্ত তার ব্যাক্তিগত। তার বউ যে মুক্তিপনের কথা বলেছেন সেটাও কোন ফ্রড করেছে। এই বিষয়ে সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করেছে।

তাকে দুইজন মটরসাইকেলে ফলো করতেছিলো এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা তার ধারণা ছিলো। এর তো তেমন কোন ভিত্তি নাই। তিনি যেহেতু নিজেই ছিলেন আত্মগোপনে এর তো কোন আর ভিত্তি থাকেনা।
দেশ বা সরকারকে বিব্রতকর করতে এমন কিনা সেটাও আমরা যাচাই করে দেখছি। তবে সেরকম কোন উদ্দেশ্য ছিলোনা বলে মনে হচ্ছে।

উপ-পুলিশ কমিশনার বলেন, আবু ত্ব-হা শিক্ষিত ছেলে তাই মোবাইল ফোন বন্ধ করে রেখেছিলেন যাতে তাকে ট্রাক করা না যায়। বাকিদেরও মোবাইল তিনি বন্ধ করে রেখেছিলেন। আজ তারা নিজ থেকেই আবার ফিরে এসেছি।
আমরা আদনান, মুহিত সহ তিনজনকে ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে এসেছি। আরেকজন আছে বগুড়ায় তাকেও নিয়ে আসা হচ্ছে। আপাতত তারা থানায় থাকবে। প্রয়োজনীয় জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আমরা তাদেরকে আদালতে প্রেরণ করবো এবং সেখানে তাদের বক্তব্য অনুযায়ী আদালত সিদ্ধান্ত নিবে।
তাদেরকে আমরা আটক করিনি। উদ্ধার করেছি। এখন তাদের আবেদন অনুযায়ী পুলিশ তাদেরকে সহযোগিতা করবে।

এসময় পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার স্যোসাল মাধ্যমে শেয়ার দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2022 teestasangbad.com
Developed BY Rafi It Solution