1. jfjoy24@gmail.com : admin :
  2. wordpressdefaults@gmail.com : defaults :
রংপুরে পরকীয়ার গোমড় ফাঁস করায় মুক্তিযোদ্ধা ও তার পরিবারকে অমানবিক নির্যাতন | তিস্তা সংবাদ
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ১০:১৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

রংপুরে পরকীয়ার গোমড় ফাঁস করায় মুক্তিযোদ্ধা ও তার পরিবারকে অমানবিক নির্যাতন

প্রতিনিধি
  • আপডেট রবিবার, ২৭ জুন, ২০২১
  • ১৪৪

 

রংপুর সিটি করপোরেশনের ২৬নং ওয়ার্ডে পরকীয়া প্রেমের গোমড় ফাঁস করায় বীর মুক্তিযোদ্ধা এরফান আলী (৭৬) ও তাঁর পরিবার অমানবিক নির্যাতনের শিকার।
গত শনিবার (২৬ জুন) রাত সাড়ে আটটায় রংপুর পাটবাড়ী রেলস্টেশন সংলগ্নের বাসিন্দা জুলেখা (৩৫) ও ইমান আলী (৫৬) র দীর্ঘ পরকীয়া প্রেমের তথ্য ফাঁস করে দেওয়ায় প্রতিবেশী বীর মুক্তিযোদ্ধা এরফান আলী ও তার স্ত্রী জহীরুননেসা, পুত্র মোহিদুল ইসলাম ও মোকাদ্দেস ইসলাম, পুত্রবধু জেসমিনসহ পরিবারের সকলকে মারধর, ঘরবাড়ি ভাংচুরসহ অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে। নির্যাতনে জড়িত ছিলেন প্রতিবেশী জুলেখা ও তার পুত্র আরমান, শাওনসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্য এবং প্রেমিক প্রতিবেশী ইমান আলী ও তার পরিবার। এই হামলার ঘটনায় এলাকার বেশকিছু বখাটে ছেলে জড়িত ছিলেন বলে জানান এরফান আলী ও তার পরিবার।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রতিবেশী সূত্রে জানা গেছে, জুলেখার পুত্র শাওন বীর মুক্তিযোদ্ধা এরফান আলীকে লাথি মেরে ফেলে দিয়ে লাঠি, বাঁশ দিয়ে মারধর করায় হাত কেটে গেছে। জুলেখা, শাওন, আরমান, ইমান আলী ছাড়াও বখাটে কিছু ছেলেদের এনে এরফান আলীর পরিবারকে নির্মমভাবে নির্যাতন করা। ছেলে হয়েও আইন ভঙ্গ করে এরফান আলীর স্ত্রী ও পুত্রবধুকেও মারধর করেছে বলে জানান তারা।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক প্রতিবেশি বলেন, জুলেখা চরিত্রহীন একজন মহিলা। এলাকায় তার সঙ্গে প্রায় মানুষের সামান্য বিষয় নিয়ে ঝগড়া-ঝাটি লেগেই থাকে। তিনি প্রতিবেশীদের কাউকেই তোয়াক্কা করেন না। নিজের প্রভাব বিস্তারের জন্য এলাকার যেকোনো কাজে নিজের নাকগলান আর নিজের মতামতকেই প্রতিষ্ঠা করার জন্য দাপট খাটান। তার কথার উপরে কেউ কথা বললেই তুমুল ঝগড়ার সৃষ্টি করেন।
বীর মুক্তিযোদ্ধা এরফান আলীকে বিকট মারধর করায় গুরতর আহত হয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজে চিকিৎসারত রয়েছেন। এছাড়াও এরফান আলীর পরিবার নির্যাতনের শিকার হয়ে রংপুর মেট্টােপলিটন পুলিশের শরণাপন্ন হয়ে এ প্রসঙ্গে ন্যায় বিচারের দাবি জানিয়ে আইনের আশ্রয় নিয়েছেন।

এ বিষয়ে রসিক ২৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফুল ইসলাম ফুলু  বলেন, ঘটনাটি জেনেছি, কেউ অভিযোগ নিয়ে আসেনি আমার কাছে। তবে ওয়ার্ড কাউন্সিলর হিসেবে আমি নিজে থেকে বিষয়টির খোঁজ-খবর নিয়ে কোন ধরণের বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করি।

আপনার স্যোসাল মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই বিভাগের আরো খবর
© ২০২৪ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | তিস্তা সংবাদ.কম
Theme Customization By NewsSun